ঢাকা,শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

ইসলামি বইমেলায় গবেষণাধর্মী বই পাওয়া যাচ্ছে বিআইআইটির স্টলে

রাজধানীর জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেট প্রঙ্গনে জমে উঠেছে মাসব্যাপী ইসলামি বইমেলা। শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি ও জুমার দিন হওয়ায় বিকাল হতে হতেই যেন তিল ধারনের ঠাই নেই এ বইমেলায়। ইসলামি বই কিনতে রাজধানীসহ দেশের নানা প্রান্ত থেকে মেলায় ছুটে আসছে মানুষ।

ইসলামি এ বইমেলায় পাওয়া যাচ্ছে গবেষণাধর্মী বই। মেলার ৪০ নং স্টলে পাওয়া নানা গবেষণাধর্মী বইয়ের সমাহার নিয়ে হাজির হয়েছে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইসলামিক থট (বিআইআইটি)। এখানে পাওয়া যাচ্ছে ইসলামি রাজনীতি, অর্থনীতি, সমাজ সভ্যতার উপরে অসংখ্য বিশ্বখ্যাত ইসলামী স্কলারের লিখা বই। গবেষণধর্মী বই কিনতে পাঠকরাও ভিড় করছেন এই স্টলটিতে।বিআইআইটির পরিচালক মোঃ সোলায়মান মিয়া বলেন, যত দিন যাচ্ছে মানুষের ইসলামী বই ও গবেষণার প্রতি প্রতি আগ্রহ বাড়ছে। এসব বই পড়ে মানুষ ইসলামকে ভালোভাবে অুনধাবন করতে পারছে। বিআইআইটির সহকারী পরিচালক ডক্টর সৈয়দ শহীদ আহমাদ বলেন, ‘আমাদের এখানে বিশ্বখ্যত অসংখ্য ইসলামী স্কলারের লিখা অনেক গবেষণাধর্মী বই এসেছে। মানুষ ব্যপক আগ্রহের সাথে গাবেষণাধর্মী বই কিনছে। মানুষের হাতে গবেষণাধর্মী বই তুলে দিতে আমাদের এই ধরনের কাজ অব্যহত থাকবে ইনশাআল্লাহ।’

পবিত্র রবিউল আওয়াল মাস উপলক্ষে প্রতি বছরের মতো এবারও মেলার আয়োজন করেছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। গত ৮ অক্টোবর বিকালে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান মেলার উদ্বোধন করেন। এবারে মেলায় ৬৪টি স্টল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। মেলায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বই বিক্রয় কেন্দ্র, বিআইআইটি, গার্ডিয়ান পাবলিকেশন্স, সমকালীন প্রকাশনী, কালান্তর প্রকাশনী, রাহনুমা প্রকাশনী, বই ঘর, চেতনা প্রকাশন, মাকতাবাতুল ফোরকান, সালসাবীল পাবলিকেশন্স, ইত্তেহাদ পাবলিকেশন্স, রফরফ প্রকাশনীসহ অসংখ্য নামি দামী প্রকাশনি স্টল গড়েছে। এ বছরই প্রথম ‘লেখক কর্নার’ চালু করেছে কর্তৃপক্ষ। পছন্দের লেখকের অটোগ্রাফ নিচ্ছে ভক্ত-পাঠকরা। লেখকদের সঙ্গে পাঠকদেরও উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। প্রতিদিন বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে স্টলে স্টলে দেখা মিলছে উপচে পড়া ভিড়। সেই সঙ্গে ক্রেতা-বিক্রেতাদের ব্যাপক উচ্ছ্বাস।

এ ছাড়াও মেলায় হ্যান্ডিক্রাফটস ও ইসলামি ক্যালিগ্রাফিসহ ইসলামি ঐতিহ্যের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সামগ্রী রয়েছে। পাঠকের চাহিদার বিষয়টি মাথায় রেখে বই বিক্রিতে নানা রকম অফার ও ছাড় দিচ্ছে স্টলগুলো। অনেক স্টল সৌজন্য উপহারও প্রদান করছে পাঠকদের। অনেকেই আবার আয়োজন করেছেন সিরাত (সা.)-এর ওপর কুইজ প্রতিযোগিতা। সেই সঙ্গে প্রশস্ত জায়গা এবং সুন্দর পরিবেশ থাকায় পাঠকরা বেশ সময় নিয়ে বই দেখতে ও পড়তে পারছেন বলেও জানা যায়। মেলায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের স্টলে সব বই ৩৫ শতাংশ ছাড়ে বিক্রি হচ্ছে।

এনজে

পাঠকের মতামত: