ঢাকা,শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

রাশিয়ার তেল-গ্যাস-গম কিনতে তালেবানের চুক্তি

আফগানিস্তানের ক্ষমতাসীন তালেবান রাশিয়া থেকে পেট্রল, ডিজেল, প্রাকৃতিক গ্যাস ও গম কেনার চুক্তিতে সই করেছে । আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রী হাজি নুরউদ্দিন আজিজি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেছেন, আফগানিস্তান এর বাণিজ্যিক অংশীদারত্বে বৈচিত্র্য আনার চেষ্টা করছে এবং বিশ্ববাজারে ভোগ্যপণ্যের গড় দামের তুলনায় তালেবানকে ছাড় দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে রাশিয়া।

আজিজি বলেন, চুক্তি অনুসারে, আফগানিস্তানকে প্রতি বছর ১০ লাখ টন পেট্রল, ১০ লাখ টন ডিজেল, পাঁচ লাখ টন তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলপিজি) এবং ২০ লাখ টন গম সরবরাহ করবে রাশিয়া।

একটি অনির্দিষ্ট পরীক্ষাকালীন সময়ের জন্য এই চুক্তি বহাল থাকবে। তারপরে উভয় পক্ষই এই ব্যবস্থায় সন্তুষ্ট থাকলে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তি হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

তবে এসব পণ্য আফগানিস্তান কী দামে কিনছে বা তা কোন প্রক্রিয়ায় পরিশোধ করবে, সে বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হননি আফগান মন্ত্রী। তিনি বলেছেন, বিশ্ববাজারের তুলনায় দামে ছাড় দিতে রাজি হয়েছে রাশিয়া এবং এসব পণ্য সড়ক ও রেলপথে সরবরাহ করা হবে।

গত মাসে মস্কো সফরে গিয়েছিলেন হাজি নুরউদ্দিন আজিজি। তবে সেসময় চুক্তিটি চূড়ান্ত হয়নি। পরে একটি আফগান টেকনিক্যাল টিম কয়েক সপ্তাহ ধরে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি চূড়ান্ত করে।

তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয়ে রাশিয়ার জ্বালানি ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের মন্তব্য পাওয়া যায়নি। দেশটির তেল-গ্যাসের দায়িত্বে থাকা উপ-প্রধানমন্ত্রী আলেকজান্ডার নোভাকের দপ্তরও রয়টার্সের অনুরোধে সাড়া দেয়নি।

রাশিয়া এখন পর্যন্ত তালেবান সরকারকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেয়নি। তবে কাবুল দখলের পর গোষ্ঠীটির নেতারা মস্কো সফরে গিয়েছিলেন। এছাড়া আফগান রাজধানীতে এখনো খোলা থাকা হাতেগোনা কয়েকটি বিদেশি দূতাবাসের মধ্যে একটি রাশিয়ার।

গত বছর তালেবান ক্ষমতা দখলের পর থেকে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটে পড়েছে আফগানিস্তান। দেশটির আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহায়তা বন্ধ হয়ে গেছে, নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছে ব্যাংকিং খাত। আফগান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রায় ৭০০ কোটি মার্কিন ডলারের তহবিল আটকে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এনজে

পাঠকের মতামত: