ঢাকা,রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

রূপালী ব্যাংকের ৪ মাস ব্যাপী বিশেষ কর্মসূচী ঘোষণা

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকী ও আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে রাষ্ট্রায়ত্ব রূপালী ব্যাংক লিমিটেড ৪ মাস ব্যাপী বিশেষ কর্মসূচী ঘোষণা করেছে। রোববার (৩ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর দিলকুশাস্থ ব্যাংকটির প্রধান কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে এই বিশেষ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ। এ সময় তিনি বলেন, টার্গেট না থাকলে অর্জন আসে না। তাই টার্গেট অনুযায়ী কাজ করলে রূপালী ব্যাংক এগিয়ে যাবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রূপালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান কাজী ছানাউল হক। তিনি বলেন, সরকারের ২০৪১ সালের উন্নত দেশ গড়ার পরিকল্পনা ও ডেল্টা প্ল্যানের সাথে সঙ্গতি রেখে রূপালী ব্যাংক এগিয়ে যাবে এবং একটি মডেল ব্যাংকে পরিণত হবে। তিনি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এর নেতৃত্বের প্রশংসা করেন।

এতে সভাপতিত্ব করেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকী ও ২৮ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য তনয়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন এখানে ৪৮ এবং ২৮ উভয়ের শুরুতে ৮ উচ্চারিত হয়। তাই ৮ অংকটিকে উপজীব্য করে অর্থাৎ শোককে শক্তিতে রূপান্তর এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনকে অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে গ্রহন করে সেপ্টেম্বর ২০২৩ থেকে ডিসেম্বর ২০২৩ পর্যন্ত এই বিশেষ কর্মসূচী ঘোষণা করেন। এই কর্মসূচী সফল করতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা প্রদান করেন। তিনি আরও বলেন, আট হোক শক্তি আটে হোক জাগরণ, আটে আটে ভরে যাক সব সূচকে অর্জন।

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণের লক্ষ্যে আমানত সংগ্রহ, হিসাব খোলা, ঋণ ও অগ্রিম প্রদান, খেলাপি ঋণ আদায়, দ্রুত মামলা নিষ্পত্তি, অটোমেটেড চালান সংগ্রহ, রেমিটেন্স আহরণ ও ব্যয় সংকোচন এই ৮টি ঘোষিত সূচকে লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের মাধ্যমে ২০২৩ সালের মধ্যে ব্যাংকটিকে একটি সম্মানজনক অবস্থানে নিয়ে যাওয়ার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর।

এ সময় ব্যাংকের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী আবদুর রহমান, হাসান তানভীর ও তাহমিনা আখতার এবং প্রধান কার্যালয় ও ঢাকার সকল মহাব্যবস্থাপক, উপমহাব্যবস্থাপক, সহকারী মহাব্যবস্থাপক ও শাখা ব্যবস্থাপকগণ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও সকল বিভাগীয় কার্যালয়ের মহাব্যবস্থাপক, আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপমহাব্যবস্থাপক, কর্পোরেট শাখার নির্বাহী ও শাখার ব্যবস্থাপকগন ভার্চ্যুয়ালি অংশ নেন।

পাঠকের মতামত: