ঢাকা,রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

বিশ্ববাজারে বেড়েছে জ্বালানি তেলের দাম

চলমান বৈশ্বিক সংকটের মধ্যে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের বৈশ্বিক সরবরাহ আবারো ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এর প্রভাবে আন্তর্জাতিক বাজারে সোমবার বেড়েছে পণ্যটির দাম। খবর রয়টার্স।

আইসিই ফিউচারসে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের আন্তর্জাতিক বাজার আদর্শ ব্রেন্টের দাম ৫৬ সেন্ট বা দশমিক ৮ শতাংশ বেড়েছে। প্রতি ব্যারেলের মূল্য স্থির হয়েছে ৭৪ ডলার ৪১ সেন্ট।

অন্যদিকে নিউইয়র্ক মার্কেন্টাইল এক্সচেঞ্জে (নিমেক্স) মার্কিন বাজার আদর্শ ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) দাম ৪৪ সেন্ট বা দশমিক ৬ শতাংশ বেড়েছে। প্রতি ব্যারেলের মূল্য স্থির হয়েছে ৬৯ ডলার ৪৪ সেন্ট। কার্যদিবসের শুরুতে এশিয়ার বাজারে উভয় বাজার আদর্শের দাম বেড়েছে ১ দশমিক ৩ শতাংশ।

রাশিয়ার ভাড়াটে সেনাবাহিনী ভাগনার গ্রুপ দেশটির সামরিক নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করে। ভাগনারের প্রধান ইয়েভগিনি প্রিগোজিন শনিবার প্রায় ২৫ হাজার সেনা নিয়ে ইউক্রেন থেকে রাশিয়ার রোস্তোভ প্রদেশে প্রবেশ করেন।

প্রিগোজিন হুমকি দেন, নিজ সেনাদের নিয়ে তিনি রাজধানী মস্কোয় যাবেন এবং বর্তমান সামরিক নেতৃবৃন্দকে ক্ষমতাচ্যুত করে তারপর ক্ষান্ত হবেন। তবে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় দাবি করেছে, ভাগনারের অনেক সেনা ভুল বুঝতে পেরে আত্মসমর্পণ করেছেন এবং তারা তাদের স্থায়ী ঘাঁটিতে চলে যেতে সহায়তা চেয়েছেন। এছাড়া রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জাতির উদ্দেশে দেয়া এক ভাষণে এ বিদ্রোহের তীব্র সমালোচনা করেছেন।

বিদ্রোহ নিয়ন্ত্রণে আসার দাবি করা হলেও এর পর রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের জন্য এটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। রাশিয়া বিশ্বের শীর্ষ অপরিশোধিত জ্বালানি তেল উত্তোলক ও রফতানিকারক। বিদ্রোহের কারণে দেশটিতে চলমান রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা পণ্যটির সরবরাহ ব্যাহত করতে পারে।

বাজার পরামর্শক প্রতিষ্ঠান রাইস্ট্যাড এনার্জি জানায়, রাশিয়ায় সেনা বিদ্রোহের কারণে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম বেড়েছে। কিন্তু এ ঘটনার প্রভাবে মূল্যবৃদ্ধির হার খুব বেশি বাড়বে না।

এদিকে আরবিসি পুঁজিবাজার বিশ্লেষকরা জানান, সেনা বিদ্রোহের কারণে পুতিন মার্শাল ল জারি করতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এতে বন্দর ও জ্বালানি অবকাঠামোগুলো থেকে লোডিং বন্ধ হয়ে যেতে পারে। ফলে কয়েক লাখ ব্যারেল জ্বালানি তেল রফতানি ব্যাহত হবে।

পাঠকের মতামত: