ঢাকা,রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

চীনে ১.৮ শতাংশ বেড়েছে অ্যালুমিনিয়াম আমদানি

গত বছরের একই সময়ের তুলনায় মে মাসে চীনের অ্যালুমিনিয়াম আমদানি ১ দশমিক ৮ শতাংশ বেড়েছে। দেশটির শুল্ক বিভাগের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। এ বছরের এপ্রিলের তুলনায় আমদানি কিছুটা কমেছে। এর মূল কারণ শিল্প খাতে চাহিদা কমে যাওয়া।

এ বিষয়ে জেনারেল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অব কাস্টমস জানায়, চীন বিশ্বের শীর্ষ অ্যালুমিনিয়াম উৎপাদক ও ব্যবহারকারী। মে মাসে দেশটি ১ লাখ ৯১ হাজার ৭০১ টন অগঠিত অ্যালুমিনিয়াম ও অ্যালুমিনিয়াম পণ্য আমদানি করে। গত বছরের একই সময় আমদানির পরিমাণ ছিল ১ লাখ ৮৮ হাজার ৪৬৯ টন। অন্যদিকে এ বছরের এপ্রিলে আমদানি করা হয় ২ লাখ ২২ হাজার ৮৫১ টন।

ধাতুটি প্রধানত পরিবহন, ভবন নির্মাণ ও প্যাকেজিং খাতে ব্যবহার হয়। গত মাসে ধাতুটির ব্যবহার হয়েছে তুলনামূলক কম। হাউজিং খাতে অস্থিতিশীলতার কারণে ব্যবহারে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। এক্ষেত্রে কারখানার কার্যক্রম কমে যাওয়া এবং নিম্নমুখী রফতানি বাজারকেও দায়ী করছেন বিশ্লেষকরা।

চীনের প্যাসেঞ্জার কার অ্যাসোসিয়েশন জানায়, সৌরবিদ্যুৎ ও গাড়ি শিল্প খাত ধাতুটির চাহিদায় কিছুটা সহায়ক ভূমিকা পালন করেছে। মে মাসে প্যাসেঞ্জার কার উৎপাদন ১৮ শতাংশ এবং বিক্রি ২৮ দশমিক ২ শতাংশ বেড়েছে।

করোনা মহামারী-সংক্রান্ত সব ধরনের বিধিনিষেধ উঠিয়ে নেয়ায় চীনের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যাশা ছিল। কিন্তু প্রত্যাশা অনুযায়ী অর্থনীতিতে গতি ফেরেনি। এ পরিস্থিতিতে বিভিন্ন খাতে প্রণোদনা বাড়ানোর কথা ভাবছে বেইজিং। বিষয়টি অ্যালুমিনিয়ামের চাহিদা বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

দেশটিতে প্রাইমারি অ্যালুমিনিয়াম উৎপাদন কিছুটা কমেছে। ইউনান প্রদেশে বিদ্যুৎ সংকট এক্ষেত্রে প্রধান ভূমিকা পালন করেছে। মে মাসে উৎপাদনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৪ লাখ ২০ হাজার টনে।

চলতি বছরের প্রথম পাঁচ মাসে চীন ৯ লাখ ৮৯ হাজার ২৯৮ টন অ্যালুমিনিয়াম আমদানি করে। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আমদানি ১০ দশমিক ৩ শতাংশ বেড়েছে। শুল্ক বিভাগ এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়।

পাঠকের মতামত: