ঢাকা,রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

ভারতীয় চালের রফতানি মূল্য ৩ মাসের সর্বোচ্চ

বৈশ্বিক বাজারে চলতি সপ্তাহে ভারতীয় চালের দাম বেড়ে তিন মাসের সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে।চালের সংকুচিত সরবরাহ এবং সরকার নির্ধারিত দাম বাড়ানোর উদ্যোগ এক্ষেত্রে প্রধান ভূমিকা পালন করেছে। তবে নিম্নমুখী চাহিদার কারণে থাই চালের দাম কমেছে। খবর রয়টার্স।

ভারত চলতি সপ্তাহে প্রতি টন ৫ শতাংশ ভাঙা সেদ্ধ চাল ৩৮৮-৩৯৫ ডলারে রফতানি করেছে। গত সপ্তাহে রফতানি হয়েছিল ৩৭৫-৩৮০ ডলারে।

ভারতে ধান-চাল সংগ্রহের নতুন মৌসুম শুরু হয়েছে। এ মৌসুমে কৃষকদের থেকে সংগ্রহের জন্য প্রতি কেজি চালের দাম ৭ শতাংশ বাড়িয়ে ২ হাজার ১৮৩ রুপি নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ বিদায়ী অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে ভারতের কাছ থেকে ৬ লাখ ৩৪ হাজার টন চাল আমদানি করেছে। খাদ্য মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র এ তথ্য জানায়। বাংলাদেশ প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে প্রায়ই আমদানির মাধ্যমে স্থানীয় চাহিদা পূরণ করে। তবে আগামী বছর আমদানির প্রয়োজন পড়বে না বলে জানিয়েছে এ মন্ত্রণালয়।

এদিকে থাইল্যান্ড চলতি সপ্তাহে প্রতি টন ৫ শতাংশ ভাঙা সেদ্ধ চাল ৪৯০-৪৯৫ ডলারে রফতানি করছে। আগের সপ্তাহে রফতানি হয়েছিল ৪৯৫ ডলারে। অর্থাৎ এক সপ্তাহের ব্যবধানে দাম কিছুটা কমেছে।

ব্যাংককভিত্তিক এক ব্যবসায়ী জানান, থাই চালের চাহিদা নিম্নমুখী বা কিছুটা অপরিবর্তিত। আগামী মাসে ধান তোলা শুরু হলে বাজারে চালের অতিরিক্ত সরবরাহ আসবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

পাঠকের মতামত: