ঢাকা,রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

ভোমরায় ৫০ শতাংশ কমেছে জিরা আমদানি

চলতি অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে (জুলাই-মার্চ)সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে জিরা আমদানি ব্যাপক কমেছে। ব্যবসায়ী ও আমদানিকারকরা বলছেন, আমদানি কমার মূল কারণ চাহিদার তুলনায় ভারতের সরবরাহ কমে যাওয়া। গত অর্থবছরের প্রথম নয় মাসের তুলনায় এবার ৫০ শতাংশ কম আমদানি হয়েছে।

এদিকে আমদানি কমে যাওয়ায় দেশীয় বাজারে জিরার দাম লাফিয়ে  লাফিয়ে বেড়েছে। দেড়-দুই মাসের ব্যবধানে প্রতি কেজি জিরা ২০০ থেকে ২২০ টাকা পর্যন্ত বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে।

এ বিষযে ভোমরা শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব শাখা থেকে জানা গেছে, চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে বন্দরটি দিয়ে জিরা আমদানি হয়েছে ১ হাজার ৬৭০ টন। যার আমদানি মূল্য ৩১ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। গত ২০২১-২২ অর্থবছরের একই সময়ে আমদানি হয় ৩ হাজার ১১৭ টন জিরা। যার আমদানি মূল্য ছিল ৫০ কোটি ৪৯ লাখ টাকা। সে হিসেবে মসলা পণ্যটির আমদানি কমেছে ১ হাজার ৪৪৭ টন।

ভোমরা শুল্ক স্টেশনের দায়িত্বরত কাস্টমসের ডেপুটি সহকারী কমিশনার নেয়ামুল হাসান জিরা আমদানি কমে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘‌মসলা পণ্য হিসেবে জিরা আমদানিতে সরকারের রাজস্ব আসে উল্লেখযোগ্য হারে। পণ্যটির আমদানি কমে যাওয়ায় রাজস্ব আয়ও কমেছে।’

এনজে

পাঠকের মতামত: