ঢাকা,রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

বিদায়ী সপ্তাহে লেনদেন কমেছে ডিএসইতে, বেড়েছে সিএসইতে

বিদায়ী সপ্তাহে সূচকের পতনে টাকার পরিমাণে লেনদেনও কমেছে। সপ্তাহটিতে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে। তবে সপ্তাহটিতে ৯৫৫ কোটি ৩৮ লাখ টাকা বাজার মূলধন বেড়েছে।

বিদায়ী সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল৭ লাখ ৬১ হাজার ৪১০ কোটি ৯৩ লাখ টাকায়। যা সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৬২ হাজার ৩৬৬ কোটি ৩১ লাখ টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে বাজার মূলধন  ৯৫৫ কোটি ৩৮ লাখ বেড়েছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে ১ হাজার ৬৩৯ কোটি ১৭ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। যার পরিমাণ আগের সপ্তাহে হয়েছিল ১ হাজার ৭৬২ কোটি ৩ লাখ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন ১২২ কোটি ৮৬ লাখ কমেছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ২০৬ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৩ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে এক হাজার ৩৪৯ পয়েন্টে এবং ২ হাজার ২০৯ পয়েন্টে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৬৮টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ৯১টির , কমেছে ৪০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩৭টির শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ১১২ কোটি ৬৬ লাখ টাকার। যার পরিমাণ আগের সপ্তাহে ছিল ৬৪ কোটি ১৪ লাখ টাকার। অর্থাৎ লেনদেন বেড়েছে ৫০ কোটি ৫২ লাখ টাকা টাকার।

সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৮৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ২৮৮ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ১৮৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ৪৬টির দর বেড়েছে, ৪৩টির দর কমেছে এবং ৯৮ টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

পাঠকের মতামত: