ঢাকা,বুধবার, ১২ জুন ২০২৪

টিপু মুনশির বন্ড আছে চার কোটি টাকার

জাতীয় নির্বাচনে রংপুর-৪ (কাউনিয়া-পীরগাছা) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির নগদ ২ কোটি টাকার বেশি আছে। একাদশ সংসদ নির্বাচনে নিজ নামে কোনো টাকা দেখাননি তিনি। সে সময় নগদ টাকা, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমা অর্থসহ সবই দেখানো হয়েছিল স্ত্রীর নামে। তবে এবার স্ত্রীর নামে দেখাননি কিছুই।

গত নির্বাচনে ৬০ হাজার টাকার স্বর্ণালংকার থাকার কথা জানিয়েছিলেন টিপু মুনশি। এবার শূন্য দেখানো হয়েছে। হলফনামা অনুযায়ী তাঁর নগদ টাকা ২ কোটি ৯০ হাজার। সম্মানী ভাতায় আয় দেখানো হয়েছে ৫০ লাখ ৮৮ হাজার। ব্যবসায় দেখানো হয়েছে ২ লাখ ৬৬ হাজার। এ ছাড়া বন্ড-এক্সচেঞ্জ ইত্যাদিতে রয়েছে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা। বাস-ট্রাক ইত্যাদিতে আয় দেখানো হয়েছে ১ কোটি ৭২ লাখ ৩০ হাজার। অকৃষিজমি রয়েছে ৫৯ লাখ ৭৩ হাজার টাকার। আবাসিক ও বাণিজ্যিক দালান রয়েছে ২৭ লাখ ২২ হাজার টাকার।

একাদশ জাতীয় নির্বাচনে নিজ নামে দেখানো হয়নি কৃষিজমি। সম্মানী ভাতা খাতে আয় বলা হয়েছিল ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা। স্ত্রীর নামে ব্যাংকে টাকা দেখানো হয়েছিল ৩৪ লাখ ৩৪ হাজার। স্ত্রীর নামে বন্ড, স্টক এক্সচেঞ্জ দেখানো হয়েছিল ৪ কোটি ৫১ লাখ ৬১ হাজার টাকার। এ ছাড়া আসবাব দেখানো হয় ৪০ হাজার টাকার।

এবার বাড়ি, অ্যাপার্টমেন্ট, দোকান বা অন্যান্য ভাড়ায় ২ লাখ ৬৬ হাজার টাকা আয় দেখানো হলেও একাদশ সংসদ নির্বাচনের হলফনামায় ব্যবসা থেকে তাঁর কোনো আয় ছিল না। সম্মানী ভাতা ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা থেকে আয় বেড়ে এবার দাঁড়িয়েছে ৫০ লাখ ৮৮ হাজার টাকায়।

পোশাকশিল্পসহ বিভিন্ন ব্যবসায় জড়িত টিপু মুনশির নামে কোনো মামলা নেই। তিনবার নির্বাচিত এই সংসদ সদস্য হলফনামায় নিজ সংসদীয় এলাকায় বিদ্যুতায়ন ও শিক্ষা ক্ষেত্রে শতভাগ আর স্বাস্থ্যসেবা ও যোগাযোগ উন্নয়নে ৯০ শতাংশ অর্জন হয়েছে বলে দাবি করেছেন। রংপুর-৪ আসন থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধা টিপু মুনশি নৌকা প্রতীকে ২০০৮, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হন।

পাঠকের মতামত: