ঢাকা,শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

সপ্তাহজুড়ে কমেছে সূচক ও লেনদেন

বিদায়ী সপ্তাহে সূচকের পতনে টাকার পরিমাণে লেনদেনও কমেছে। সপ্তাহটিতে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে। আর সপ্তাহটিতে ১ হাজার ৬২১ কোটি টাকা বাজার মূলধন কমেছে।

বিদায়ী সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৭ লাখ ৬৩ হাজার ৮৪৮ কোটি ৬৯ লাখ টাকায়। যা সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৬২ হাজার ২২৬ কোটি ৯৮ লাখ টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে বাজার মূলধন ১ হাজার ৬২১ কোটি ৭১ লাখ কমেছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে ১ হাজার ৯২ কোটি ৫১ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। যার পরিমাণ আগের সপ্তাহে হয়েছিল ২ হাজার ১১১ কোটি ১৯ লাখ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন ১ হাজার ১৮ কোটি ৬৮ লাখ কমেছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ২০৫ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১০ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে এক হাজার ৩৫৫ পয়েন্টে এবং ২ হাজার ২২১ পয়েন্টে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৫০টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ১৫টির , কমেছে ১৫৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮২টির শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

অপরদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ৬৩ কোটি ৩৫ লাখ টাকার। যার পরিমাণ আগের সপ্তাহে ছিল ৩৬ কোটি ৫২ লাখ টাকার। অর্থাৎ লেনদেন বেড়েছে ১৪ কোটি ৮০লাখ টাকার।

সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৯৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ৩৩৪ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ২০৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১২টির দর বেড়েছে, ৯৪টির দর কমেছে এবং ১০১ টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

এনজে

পাঠকের মতামত: