ঢাকা,রোববার, ২৬ মে ২০২৪

খাতুনগঞ্জে পাইকারি বাজারে কমেছে পেঁয়াজের দাম

দেশে বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর চলমান হরতাল-অবরোধের কারণে ভোগ্যপণ্যের অন্যতম পাইকারি বাজার চাক্তাই-খাতুনগঞ্জে কমেছে পেঁয়াজ বিক্রি। পাশাপাশি ভারতীয় পেঁয়াজের সরবরাহ বাড়ায় দাম কমেছে পণ্যটির। গত বুধ-বৃহস্পতিবারে কেজিপ্রতি ১১৫-১২০ টাকা বিক্রি হলেও গতকাল তা নেমেছে ৮০-৯২ টাকায়। পাইকারি পর্যায়ে ২৫-৩৫ টাকা দাম কমলেও খুচরা বাজারে সে তুলনায় সামান্য কমেছে।

জানা গেছে, গত সপ্তাহের শুরুতে খাতুনগঞ্জে পাইকারি পর্যায়ে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৯৫-১০০ টাকায় বিক্রি হলেও মাত্র এক-দুদিনের ব্যবধানে দাম ওঠে ১১৫-১২০ টাকায়। পরে আড়তে ভারতীয় পেঁয়াজ আসতে শুরু করলে দাম নামতে শুরু করে।

রোববার ভারতীয় নাসিক জাতের (নতুন) পেঁয়াজ ৯০-৯২ এবং পুরনো নাসিক বিক্রি হচ্ছে ৭০-৮০ টাকায়। আর মিয়ানমার থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজিপ্রতি ৮০-৮৫ টাকায়। তবে বাজারে মিয়ানমার থেকে আসা পেঁয়াজের চাহিদা বেশ কম। এছাড়া নিম্নমানের ভারতীয় পেঁয়াজ কেজিপ্রতি ৬০-৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

খাতুনগঞ্জের পাইকারি ব্যবসায়ীরা বলছেন, বিরোধী দলের টানা হরতাল-অবরোধের কারণে গত সপ্তাহের শুরুতে বাজারে পেঁয়াজের সংকট দেখা গিয়েছিল। তাছাড়া ভারত কিছুদিন আগে পেঁয়াজ রফতানিতে টনপ্রতি ২৮ ডলার দর বেঁধে দিয়েছে। হরতাল-অবরোধে পণ্য পরিবহন সমস্যা ও ভারতের এ শর্তের কারণে খাতুনগঞ্জে পেঁয়াজ সরবরাহ কমে যায়। ফলে দামও বেড়ে যায়। তবে গত শুক্রবার খাতুনগঞ্জের আড়তগুলোয় পেঁয়াজ আসতে শুরু করেছে। এ কারণে দামও এখন কমতির দিকে।

পাঠকের মতামত: