ঢাকা,রোববার, ৩ ডিসেম্বর ২০২৩

বিশ্ববাজারে কিছুটা কমেছে স্বর্ণের দাম

বৈশ্বিক বাজারে সোমবার কিছুটা কমেছে স্বর্ণের দাম। তবে এখনো প্রতি আউন্সের দাম ১ হাজার ৯০০ ডলারের ওপরেই বহাল রয়েছে। ৭ অক্টোবর ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হলে ঊর্ধ্বমুখী হতে শুরু করে ধাতুটির বৈশ্বিক বাজার। মধ্যপ্রাচ্যের এ ভূরাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে স্বর্ণের দাম প্রায় ৩ শতাংশ বেড়ে যায়।

স্পট মার্কেটে মূল্যবান ধাতুটির দাম সোমবার দশমিক ৭ শতাংশ কমেছে। আউন্সপ্রতি মূল্য স্থির হয়েছে ১ হাজার ৯১৯ ডলার ২১ সেন্টে। একই সময় যুক্তরাষ্ট্রে ফিউচার মার্কেটে দাম কমেছে দশমিক ৫ শতাংশ। প্রতি আউন্সের মূল্য দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৯৩২ ডলার ৭০ সেন্টে।

অর্থনৈতিক ও ভূরাজনৈতিক অস্থিরতার সময় বিনিয়োগকারীরা স্বর্ণ ক্রয় বাড়িয়ে দেন। ধাতুটির দাম অস্বাভাবিক ওঠানামা না করায় বিশ্বব্যাপী স্বর্ণকে নিরাপদ বিনিয়োগমাধ্যম হিসেবে বিবেচনা করা হয়। মধ্যপ্রাচ্যে চলমান অস্থিরতার কারণে ধাতুটির দাম সাত মাসের মধ্যে গত শুক্রবারই একদিনে সর্বোচ্চ ৩ দশমিক ৪ শতাংশ বাড়ে। প্রতি আউন্সের দাম ওঠে ১ হাজার ৯৩৪ ডলার ৮২ সেন্টে, যা ২০ সেপ্টেম্বরের পর সর্বোচ্চ।

রয়টার্সের প্রযুক্তিগত বিশ্লেষক ওয়াং তাওর মতে, আউন্সপ্রতি দাম আবারো ১ হাজার ৯৩৩ ডলারে উঠতে পারে। পরে ১ হাজার ৯৫৩ ডলার পর্যন্ত স্বর্ণের বাজার ওঠার সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে স্পট মার্কেটে রুপার দাম দশমিক ১ শতাংশ বেড়ে আউন্সপ্রতি দাম উঠেছে ২২ ডলার ৭১ সেন্টে।

প্যালাডিয়ামের দর দশমিক ৪ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ১৫২ ডলার ২৬ সেন্টে। তবে ৮৮১ ডলার শূন্য ৪ সেন্টে অপরিবর্তিত ছিল প্লাটিনামের বাজার।

বিনিয়োগকারীরা এখন মধ্যপ্রাচ্যের পরিস্থিতি উন্নয়নের দিকে নজর রাখছেন। পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের আর্থিক নীতির দিকেও তাকিয়ে আছেন। বিশেষ করে চলতি সপ্তাহের শেষের দিকে মার্কিন ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকের প্রধান জেরেমি পাওয়েল কী বক্তব্যে রাখের তার জন্য অপেক্ষা করছেন।

পাঠকের মতামত: