ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর ২০২৩

মধ্যপ্রাচ্যে সংঘাত, ঊর্ধ্বমুখী বৈশ্বিক পণ্যবাজার

ফিলিস্তিন ও ইসরাইলের মধ্যে চলমান সংঘর্ষের প্রভাবে ঊর্ধ্বমুখী হয়ে উঠেছে বৈশ্বিক পণ্যবাজার। মধ্যপ্রাচ্যের বৃহত্তর অঞ্চলে যুদ্ধ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় এরই মধ্যে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে গেছে প্রায় ৪ শতাংশ। গ্যাসের দাম বেড়েছে দশমিক ১ শতাংশ। রাজনৈতিক অস্থিরতার প্রভাব পড়েছে ধাতব পণ্যের বাজারেও। নিরাপদ বিনিয়োগ মাধ্যম হওয়ায় স্বর্ণের চাহিদা বেড়ে গেছে স্পট মার্কেটে। মূল্যবৃদ্ধির ছোঁয়া লেগেছে গম ও চিনির মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজারেও। খবর রয়টার্স।

লন্ডন মেটাল এক্সচেঞ্জে (এলএমই) স্বর্ণ ও তামার দাম এক সপ্তাহের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। একই সময়ে প্রাকৃতিক গ্যাস, চিনি, গমসহ বেশ কয়েকটি পণ্যের দামও ঊর্ধ্বমুখী হতে শুরু করেছে। একদিনের ব্যবধানে সোমবার স্বর্ণের দাম ১ দশমিক ৬ শতাংশ বেড়ে গেছে। স্পট মার্কেটে ধাতুটির দাম উঠেছে প্রতি আউন্স ১ হাজার ৮৬৫ ডলার ১৯ সেন্টে। গত ২৯ সেপ্টেম্বরের পর এটিই সর্বোচ্চ দাম। যুক্তরাষ্ট্রের ফিউচার মার্কেটেও মূল্যবান ধাতুটির দাম বেড়েছে দশমিক ৫ শতাংশ। আউন্সপ্রতি মূল্য উঠেছে ১ হাজার ৮৭৪ ডলার ১০ সেন্টে।

আইসিই ফিউচারসে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের বাজার আদর্শ ব্রেন্টের দাম মঙ্গলবার ৩ দশমিক ৯ শতাংশ বেড়েছে। ব্যারেলপ্রতি মূল্য স্থির হয়েছে ৮৭ ডলার ৮৯ সেন্টে। অন্যদিকে, নিউইয়র্ক মার্কেন্টাইল এক্সচেঞ্জে (নিমেক্স) মার্কিন বাজার আদর্শ ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) দাম বেড়েছে প্রতি ব্যারেলে ৪ দশমিক ৩ শতাংশ। দাম দাঁড়িয়েছে ৮৬ ডলার ৩৮ সেন্টে।

হামাস ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে আকস্মিক হামলা চালায়। এতে অঞ্চলটিতে কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ সংঘর্ষের সূচনা ঘটে। ৮ অক্টোবর থেকে সর্বাত্মক যুদ্ধ ঘোষণা করে ইসরায়েল। এ সহিংসতার কারণে সৌদি আরব ও ইসরায়েলের মধ্যে সম্পর্ক স্থাপনে চলমান মার্কিন প্রচেষ্টা গতি হারাতে পারে।

হোয়াইট হাউজকে সৌদি কর্মকর্তারা ৬ অক্টোবর বলেছিলেন, প্রস্তাবিত ইসরায়েল চুক্তির অংশ হিসেবে আগামী বছর জ্বালানি তেল উৎপাদন বাড়াতে ইচ্ছুক তারা।

আরজেও ফিউচারসের বাজার বিশেষজ্ঞ বব হ্যাবারকর্ন বলেছেন, ‘মধ্যপ্রাচ্যে পরবর্তী সময়ে কী ঘটতে পারে তা নিয়ে অনেক প্রশ্ন রয়েছে। তবে সংঘাত আরো বাড়লে স্বর্ণের দাম ১ হাজার ৯০০ ডলারের দিকে যেতে পারে।’ মার্কিন ট্রেজারি বন্ডের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় গত শুক্রবারও ধাতুটির চাহিদা সাত মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন ছিল।

এদিকে তামার দামও গত সপ্তাহের তুলনায় বেড়ে গেছে। যদিও প্রধান ভোক্তা চীনে চাহিদা কমার প্রভাব এখনো রয়ে গেছে। এলএমইতে তামার দাম শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ বেড়ে প্রতি টন ৮ হাজার ৮৫ ডলার হয়েছে।

শিকাগো বোর্ড অব ট্রেডে কৃষিপণ্য লেনদেনেও যুদ্ধের আঁচ লেগেছে। গমের দাম দশমিক ৭৫ শতাংশ বেড়ে প্রতি এক-চতুর্থাংশ বুশেলে দাম দাঁড়িয়েছে ৫ ডলার ৭২ সেন্ট। অপরিশোধিত চিনির দাম বেড়েছে পাউন্ডপ্রতি প্রায় ১ শতাংশ বা ২৭ সেন্ট। অন্যদিকে, নিমেক্স নভেম্বরে সরবরাহ চুক্তিতে গ্যাসের দাম বেড়েছে দশমিক ১ শতাংশ। প্রতি ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিটের দাম উঠেছে ৩ ডলার ৩৪২ সেন্টে।

পাঠকের মতামত: