ঢাকা,রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

ইউক্রেনের কৃষিপণ্য রফতানি বেড়েছে ১৬ শতাংশ

রাশিয়া-ইউক্রেন চলমান যুদ্ধের মধ্যে আগস্টে ইউক্রেনের কৃষিপণ্য রফতানি আগের মাসের তুলনায় ১৬ শতাংশ বেড়েছে। রফতানির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৩ লাখ টনে। লজিস্টিকস-সংক্রান্ত জটিলতা এবং প্রধান রফতানি রুটগুলোয় রাশিয়ার অব্যাহত আক্রমণ সত্ত্বেও দেশটি রফতানিতে প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। দেশটির এগ্রিকালচারাল বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন বা ইউসিএবি সম্প্রতি এ তথ্য জানিয়েছে।

আগস্টে ইউক্রেন ২৩ লাখ টন খাদ্যশস্য রফতানি করে। তেলবীজ রফতানির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৫৫ হাজার টনে। ওই মাসে দেশটি উদ্ভিজ্জ তেল রফতানি করে ৫ লাখ ৪৮ হাজার টন। এছাড়া বিভিন্ন পশুখাদ্য রফতানি করা হয় ৩ লাখ ৬৭ হাজার টন। সূর্যমুখী তেল ও গম রফতানি প্রবৃদ্ধিতে প্রধান ভূমিকা পালন করেছে।

ইউক্রেনের কৃষি মন্ত্রণালয় জানায়, ২০২৩-২৪ মৌসুমের শুরু থেকে ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশটি ৪৫ লাখ টন খাদ্যশস্য রফতানি করে। গত বছরের একই সময় রফতানির পরিমাণ ছিল ৩৯ লাখ টন। অর্থাৎ এক বছরের ব্যবধানে রফতানি ছয় লাখ টন বেড়েছে।

অ্যাসোসিয়েশন জানায়, রফতানি রুট হিসেবে সবচেয়ে কার্যকরী ভূমিকা রেখেছে দানিয়ুব নদীবন্দরগুলো। আগস্টে মোট রফতানির ৬৪ শতাংশই হয়েছে এসব বন্দর দিয়ে।

গত ১৭ জুলাই রাশিয়া কৃষ্ণ সাগরীয় খাদ্যশস্য রফতানি চুক্তি থেকে সরে আসে। দেশটির অভিযোগ ছিল, রুশ খাদ্যশস্য ও সার রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করার কথা থাকলেও তা হয়নি। এছাড়া চুক্তির মাধ্যমে দরিদ্র দেশগুলোয় পর্যাপ্ত খাদ্যশস্য পৌঁছেনি বলেও দাবি তোলে দেশটি।

এনজে

পাঠকের মতামত: