ঢাকা,রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

ঈদযাত্রার ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে আজ

মুসলিম সম্প্রদায়ের অন্যতম প্রধান উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে আজ শনিবার শুরু হয়েছে ঈদযাত্রার ট্রেন চলাচল। এদিন সকাল ৬টায় ধূমকেতু এক্সপ্রেসের মাধ্যমে ট্রেনযোগে ঈদযাত্রা শুরু হলো। ঈদযাত্রার প্রথম দিনে আন্তঃনগর ও লোকাল মিলিয়ে ৫৩ জোড়া ট্রেন দেশের বিভিন্ন গন্তব্যে চলাচল করবে। কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার মাসুদ সারওয়ার এ তথ্য জানান।

এ বিষয়ে রেলওয়ে সূত্র জানায়, এবারও ঈদযাত্রায় আসনবিহীন বা স্ট্যান্ডিং টিকিট বিক্রি হবে মোট আসনের ২৫ শতাংশ। ঢাকা (কমলাপুর), ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট, বিমানবন্দর ও জয়দেবপুর স্টেশন থেকে এসব টিকিট পাওয়া যাবে। শুধু যাত্রা শুরুর দিন আসনবিহীন টিকিট স্টেশনের কাউন্টার থেকে কেনা যাবে।

এবার ঈদযাত্রায় ঢাকা থেকে আন্তঃনগর ট্রেনে প্রতিদিন প্রায় ২৯ হাজার আসনের টিকিট বিক্রি হয়েছে। কমলাপুর স্টেশনের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে ঢাকা সেনানিবাস স্টেশন থেকে তিনজোড়া বিশেষ ট্রেন চলাচল করবে।

শনিবার (২৪ জুন) ভোরে কথা হয় ধূমকেতু এক্সপ্রেসের যাত্রী এম জেড আবেদিনের সঙ্গে। জাগো নিউজকে তিনি বলেন, সবচেয়ে ভালো দিক যথাসময়ে ট্রেন ছেড়েছে। কম সময়েই বাড়ি পৌঁছাতে পারবো।

তিনি বলেন, অনলাইনে টিকিট কাটার বাড়তি আনন্দ আছে। সবারই বাড়ি যেতে হবে, সকাল সকাল সার্ভারে প্রবেশ করা, টিকিট কাটাও আনন্দের।

এর আগে গত ১৪ জুন থেকে আন্তঃনগর ট্রেনের ঈদযাত্রার অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়। রেলওয়ের পরিকল্পনা অনুযায়ী ১৪ জুন দেওয়া হয় ২৪ জুনের টিকিট। একইভাবে ১৫ জুন দেওয়া হয় ২৫ জুনের, ১৬ জুন ২৬ জুনের, ১৭ জুন ২৭ জুনের এবং ১৮ জুন দেওয়া হয় ২৮ জুনের অগ্রিম টিকিট।

একইভাবে ঈদযাত্রার ট্রেনের ফিরতি অগ্রিম টিকিট দেওয়া শুরু হয় ২২ জুন থেকে। ২২ জুন দেওয়া হয় ২ জুলাইয়ের টিকিট। যথাক্রমে ২৩ জুন ৩ জুলাইয়ের, ২৪ জুন ৪ জুলাইয়ের, ২৫ জুন ৫ জুলাইয়ের ও ২৬ জুন ৬ জুলাইয়ের ফিরতি ট্রেনের টিকিট দেওয়া হবে।

এবার ট্রেনের অগ্রিম টিকিট শতভাগ অনলাইনে দেওয়া হলেও টিকিট বিক্রিতে কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে। অনলাইনে দুই ভাগে দেওয়া হয় অগ্রিম টিকিট। ঈদযাত্রায় পশ্চিমাঞ্চলে চলাচল করা সব আন্তঃনগর ট্রেনের অগ্রিম টিকিট অনলাইনে পাওয়া যায় সকাল ৮টা থেকে। আর দুপুর ১২টা থেকে পূর্বাঞ্চলে চলাচল করা ট্রেনের টিকিট অনলাইনে বিক্রি হয়। ঈদুল আজহায় এবার বিভিন্ন রুটে মোট আটজোড়া বিশেষ ট্রেন পরিচালনা করবে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

পাঠকের মতামত: