ঢাকা,রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদনে আবারও রেকর্ড

দেশে বিদ্যুৎ আবারো নতুন রেকর্ড হয়েছে। বুধবার রাত ৯টায় ১৪ হাজার ৯৩২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হয়, যা এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ। এর আগে সর্বোচ্চ উৎপাদন ছিল মঙ্গলবার ১৪ হাজার ৮০০ মেগাওয়াট। তারও আগে সর্বোচ্চ উৎপাদন ছিল ২০২২ সালের ১৬ এপ্রিল ১৪ হাজার ৭৮২ মেগাওয়াট। বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

এ বিষয়ে বুধবার বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ তাঁর ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাসে লিখেন, ‘গতকালের রেকর্ড ছাপিয়ে গেল আজকের উৎপাদন। রাত ৯টার রিপোর্ট অনুযায়ী আজ দেশে মোট বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়েছে ১৪, ৯৩২ মেগাওয়াট; যা বাংলাদেশের ইতিহাসে বিদ্যুৎ উৎপাদনের নতুন রেকর্ড। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ছিলু যে কোনো মূল্যে সাধারণ মানুষের জীবনে স্বস্তি নিশ্চিত করতে হবে। এ লক্ষ্য পূরণে আমাদের বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীরা অক্লান্ত কাজ করে যাচ্ছেন, সবাইকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন।’

গরম বেড়ে যাওয়ায় বিদ্যুতের চাহিদা বেড়েছে। এ ছাড়া রমজান মাস ও সেচ মৌসুমের কারণে বর্তমানে বিদ্যুতের চাহিদা বেশি। বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) তথ্যমতে, সোমবার সর্বোচ্চ উৎপাদন ছিল ১৪ হাজার ৩৮০ মেগাওয়াট। মঙ্গলবারের সর্বোচ্চ চাহিদা ধরা হয়েছিল ১৪ হাজার ৭০০ মেগাওয়াট। সর্বোচ্চ উৎপাদন হয়েছে ১৪ হাজার ৮০০ মেগাওয়াট।

বর্তমানে দেশের বিদ্যুতের উৎপাদন সক্ষমতা ২২ হাজার ৭০০ মেগাওয়াট হলেও সর্বোচ্চ উৎপাদন সম্ভব ১৫ হাজার ১৮২ মেগাওয়াট। সোমবার গ্যাস স্বল্পতায় ২ হাজার ৪০৭ মেগাওয়াট, কয়লা সংকটে ১২৯ মেগাওয়াট, পানির অভাবে ২০৫ মেগাওয়াট এবং কেন্দ্র সংস্কার ও মেরামতের কারণে ২ হাজার ১৩৯ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব হয়নি। এখন ভারত থেকে আমদানি হচ্ছে ১ হাজার ৯০৭ মেগাওয়াট।

পাঠকের মতামত: