ঢাকা,শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

ব্যবসা সম্প্রসারণে যাচ্ছে সাইফ মেরিটাইমের শিপিং ও লজিস্টিকস

দেশের অন্যতম শিল্প গ্রুপ সাইফ পাওয়ারের সাইফ মেরিটাইম এলএলসি ব্যবসা সম্প্রসারণ করছে। সামুদ্রিক জাহাজ ব্যবস্থাপনাকারী কোম্পানি সাইফ মেরিটাইম এলএলসি আঞ্চলিক ব্যবসায়িক কার্যক্রম শুরু করেছে। প্রথম বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিদেশে শিপিং ও লজিস্টিকস খাতে ব্যবসা শুরু করা কোম্পানি সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড।

সাইফ মেরিটাইমকে ৫ লাখ দিরহাম বা বাংলাদেশী মুদ্রায় এক কোটি ২৬ লাখ ৯০ হাজার টাকায় (১ দিরহাম সমান ২৫ টাকা ৩৮ পয়সা) অধিগ্রহণ করে সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড।

সাইফ মেরিটাইম এলএলসি ভারী ট্রাক দ্বারা কার্গো পরিবহন, হালকা ট্রাক দ্বারা কার্গো পরিবহন, মালবাহী ও যাত্রী পরিবহনের শিপিং লাইন, সমুদ্রের মালবাহী ও যাত্রী চার্টার, কাস্টমস ব্রোকার, কার্গো লোডিং এবং আনলোডিং পরিষেবা, সি কার্গো কনটেইনারস, শিপিং সার্ভিস, শিপিং সার্ভিস লোডিং এবং আন লোডিং পরিষেবা, সি শিপিং লাইন এজেন্ট, মালবাহী ব্রোকার সার্ভিসের ব্যবসা পরিচালনা করছে।

গত বছরের জুন থেকে মধ্যপ্রাচ্যে তার শিপিং এবং লজিস্টিক কার্যক্রম প্রসারিত করে। সাইফ মেরিটাইম এলএলসি- সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড, বাংলাদেশের সাইফ পাওয়ার গ্রুপের একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান।

ব্যবসায়িক কার্যক্রম প্রসারণ সম্পর্কে গণমাধ্যমকে সোমবার বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়েছে, সাইফ মেরিটাইম এলএলসি, ইউএই ব্রেকবাল্ক মিডল ইস্টে প্রবেশের ঘোষণা দিয়েছে। এই অঞ্চলের কার্গো এবং ব্রেক-বাল্ক শিল্পের জন্য সবচেয়ে বড় প্রদর্শনী করবে। যা বছরের ইভেন্টের ব্রোঞ্জ স্পনসর হিসাবে কাজ করবে।

এ সম্পর্কে সাইফ পাওয়ার গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক তরফদার মো. রুহুল আমিন বলেন, ব্রেকবাল্ক মিডল ইস্টের ব্রোঞ্জ স্পনসরদের একজন হতে পেরে আমরা আনন্দিত। এটি আমাদের শীর্ষ শিল্প নির্মাতা, ইপিসি, প্রকল্পের মালিক, বিভিন্ন ধরনের পরিবহনকারী এবং পণ্যসম্ভারের অন্যান্য পরিষেবা প্রদানকারীদের সাথে হোস্ট এবং নেটওয়ার্ক করার সুযোগ দেয়। ব্রেক-বাল্ক ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে অনেক সম্ভাবনার বলেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. রুহুল আমিন।

গ্রুপটি প্রধান বন্দর টার্মিনাল, ঢাকার একমাত্র অভ্যন্তরীণ কন্টেইনার ডিপো (আইসিডি) এবং বাংলাদেশের একমাত্র মাল্টিমোডাল (সড়ক/রেল) অভ্যন্তরীণ কন্টেইনার ডিপো পরিচালনা করে।

সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত একটি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি। যার পরিশোধিত মূলধন ৪০ মিলিয়ন এবং বার্ষিক টার্নওভার প্রায় ২০০ মিলিয়ন। এটি বাংলাদেশের শীর্ষ ১০০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে।

গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. রুহুল আমিন বলেন, এডি পোর্টস গ্রুপ আজ লজিস্টিক, শিল্প এবং বাণিজ্যের বিশ্বের অন্যতম প্রধান সুবিধাদাতা হিসাবে কাজ করছে। সেইসাথে আবুধাবি এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতকে বিশ্বের সাথে সংযুক্ত করার একটি সেতু হিসাবে কাজ করে। যা বিশ্বকে সংযুক্ত করার আমাদের মিশনের সাথে পুরোপুরি সামঞ্জস্যপূর্ণ, বলেন তিনি।

তিনি বলেন, আমরা সমস্ত সাপ্লাই চেইন এবং লজিস্টিক প্রয়োজনীয়তার জন্য ওয়ান-স্টপ সমাধান প্রদানের জন্য উচ্ছ্বসিত। আমাদের পরিষেবাগুলির বিশ্বকে সংযুক্ত করছে।

সাইফ মেরিটাইম এলএলসি ৫৫০০ এরও বেশি কর্মচারীর সাথে আবুধাবি পোর্টস গ্রুপের সাথে বাল্ক জাহাজের মালিকানা এবং চার্টারিং ব্যবসায় জড়িত। যার সাথে এটি ১৫ বছরের জন্য আটটি সুপ্রম্যাক্স শ্রেণীর জাহাজ এবং তিনটি ব্যাংককম্যাক্স শ্রেণীর কন্টেইনার জাহাজের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

চুক্তির মাধ্যমে কোম্পানিটি শিপিং ও লজিস্টিক শিল্পে আরো সমৃদ্ধি আনবে বলে আশা করছেন রুহুল আমিন।

এটি সামুদ্রিক, বন্দর, টার্মিনাল, আইসিডি, বাঁধ এবং ভারী নির্মাণের জন্য বৃহত্তম ঠিকাদার এবং বাংলাদেশে জাতীয় ড্রেজিং প্রকল্পের একমাত্র ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

সাইফ মেরিটাইম এলএলসি ড্রাই বাল্ক ভেসেল সার্ভিস, ট্যাঙ্কার ভেসেল চার্টারিং সার্ভিস, এনভিওসিসি সার্ভিস, মালবাহী ফরওয়ার্ডিং সলিউশন, অত্যাধুনিক গুদাম সুবিধা এবং কমোডিটি ট্রেডিংসহ বিভিন্ন পরিষেবা প্রদান করে।

পাঠকের মতামত: