ঢাকা,বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪

আইডিএলসি গ্রোথ ফান্ডের লভ্যাংশ ঘোষণা

৩০ জুন সমাপ্ত ২০২২ হিসাব বছরে ইউনিটহোল্ডারদের জন্য ১৩ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে আইডিএলসি গ্রোথ ফান্ডের ট্রাস্টি। ঘোষিত লভ্যাংশ হিসাবে ফান্ডটির ইউনিটহোল্ডাররা ইউনিটপ্রতি ১ টাকা ৩০ পয়সা করে পাবেন। গত বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত ফান্ডটির ট্রাস্টি কমিটির সভা থেকে সর্বশেষ হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুমোদনের পাশাপাশি এ ঘোষণা দেয়া হয়।

৩০ জুন সমাপ্ত ২০২২ হিসাব বছরে ফান্ডটির নিট আয় হয়েছে ৪ কোটি ৮১ লাখ ৭৯ হাজার ৬৩২ টাকা। এ সময়ে ফান্ডটির ইউনিটপ্রতি আয় (ইপিইউ) হয়েছে ১ টাকা ৪৩ পয়সা। মার্কেট ভ্যালু অনুযায়ী ৩০ জুন ২০২২ শেষে ফান্ডটির ইউনিটপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিইউ) দাঁড়িয়েছে ১২ টাকা ৩৮ পয়সা। আলোচ্য হিসাব বছরের লভ্যাংশ বিতরণসংক্রান্ত ফান্ডটির রেকর্ড ডেট ধরা হয়েছে চলতি বছরের ৩০ জুন। অর্থাৎ চলতি বছরের ৩০ জুন যাদের হাতে ফান্ডের ইউনিট ছিল, তারা এ লভ্যাংশ পাবেন।

এর আগের ৩০ জুন সমাপ্ত ২০২১ হিসাব বছরের জন্য ফান্ডটির ইউনিটহোল্ডাররা ১৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ পেয়েছিলেন। আলোচ্য হিসাব বছরে ফান্ডটির ইউনিটপ্রতি আয় (ইপিইউ) হয় ৩ টাকা ৬০ পয়য়া।

সর্বশেষ অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি ২০২২ হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) আইডিএলসি ফাইন্যান্সের শেয়ারপ্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ১৬ পয়সা। যেখানে আগের হিসাব বছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ১ টাকা ১৩ পয়সা। ৩১ মার্চ ২০২২ শেষে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারপ্রতি সমন্বিত নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৪০ টাকা ১২ পয়সায়।

৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০২১ হিসাব বছরের জন্য বিনিয়োগকারীদের মোট ২০ শতাংশ লভ্যাংশ দিয়েছে আইডিএলসি ফাইন্যান্স। এর মধ্যে ১৫ শতাংশ নগদ ও ৫ শতাংশ স্টক বা বোনাস লভ্যাংশ। আলোচ্য হিসাব বছরে আইডিএলসি ফাইন্যান্সের কর-পরবর্তী সমন্বিত নিট মুনাফা হয়েছে ২১১ কোটি ৬০ লাখ টাকা। যেখানে আগের হিসাব বছরে নিট মুনাফা ছিল ২৫৪ কোটি ৫ লাখ টাকা। আলোচ্য হিসাব বছরে কোম্পানিটির সমন্বিত ইপিএস হয়েছে ৫ টাকা ৩৪ পয়সা, যা আগের হিসাব বছরে ছিল ৬ টাকা ৪২ পয়সায়। গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর শেষে কোম্পানিটির সমন্বিত এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ৪২ টাকা ৪১ পয়সা।

২০১৯ হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের ৩৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল আইডিএলসি। ২০১৮ হিসাব বছরেও একই হারে নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল কোম্পানিটি। তার আগের দুই হিসাব বছরে ৩০ শতাংশ হারে নগদ লভ্যাংশ পেয়েছিলেন কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা।

পাঠকের মতামত: